জেনে নিন ডায়াবেটিস রোগীরা খেতে পারবেন যে ফলগুলো

বর্তমান সময়ে ডায়াবেটিস খুব পরিচিত এবং সাধারণ একটি রোগ। ডায়াবেটিস রোগ নিয়ন্ত্রণে ওষুধ খাওয়ার চেয়ে ডায়েট বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। কী খাবেন আর কী খাবেন না এই নিয়ে অনেক দ্বিধা দ্বন্দ্ব কাজ করে ডায়াবেটিস রোগীদের। অথচ কিছু ফল আছে যা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য বেশ উপকারি। নির্ভাবনায় এই ফলগুলো ডায়াবেটিস রোগীরা খেতে পারেন।

১। আপেলঃ-
প্রচলিত আছে প্রতিদিন একটি আপেল খান আর ডাক্তার দূরে রাখুন। ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রেও এটি প্রযোজ্য। আপেলের ফাইবার, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, এবং ভিটামিন সি ক্যালরি কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া টাইপ-২ ডায়াবেটিস কমিয়ে রক্তে সুগার নিয়ন্ত্রণ করে।

২। কমলা এবং লেবু জাতীয় ফলঃ-
কমলা ফাইবারের অন্যতম উৎস। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে লেবু জাতীয় ফল ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস করে। কিন্তু এই জাতীয় ফলের রস আবার ডায়াবেটিস বৃদ্ধি করে থাকে। কমলার গ্লুকোজ ইনডেক্স (GI) ৪০ কিন্তু চিনি ছাড়া কমলার রসের গ্লুকোজ ইনডেক্স (GI) ৫০। তাই এই সকল ফলের রস পান করার চেয়ে ফল খাওয়া বেশি স্বাস্থ্যকর।

৩। কালো জামঃ-
কালো জাম ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনের জন্য অত্যন্ত উপকারী একটি ফল। কালো জাম রক্তের চিনির পরিমানে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে। এছাড়াও কালো জামের বীজ গুঁড়ো করে খেলেও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৪। পেয়ারাঃ-
ডায়াবেটিস রোগীদের খাওয়ার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ফল হল পেয়ারা। পেয়ারার মধ্যে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ‘সি’ এবং ভিটামিন ‘এ’ আছে, যা সুগার রোগীদের স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী। বিনা সংকোচে খেতে পারেন এই ফল।

৫। কামরাঙ্গাঃ-
দেশি এই টক ফলটা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। কামরাঙ্গায় আছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে।

এছাড়া আমড়া, আমলকী, টক বরই ইত্যাদি দেশি ফল ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*